বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
কুষ্টিয়ায় ট্রাফিক অফিস পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম দৌলতপুরে  ফেন্সিডিলসহ মাদক কারবারি  আটক ছাত্রলীগ হচ্ছে একটি ট্রেনিং সেন্টার, ছাত্রলীগের আদর্শ হবে দেশ গড়ার আর্দশ -জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মিরপুরে জাতীয় নারী জোটের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত ১৫ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে কুষ্টিয়াসহ সারাদেশে ট্রাক/পিকআপ-এ চলছে ৭২ ঘন্টা কর্মবিরতি কুষ্টিয়ায় সাংবাদিকের বাড়িতে চুরি করোনা কাবু করতে টিকা, দুর্নীতি দমন করতে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে-হাসানুল হক ইনু এমপি মাথাভাঙ্গা নদী থেকে স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার মেহেরপুরে মুজিবনগর পুলিশের ঝটিকা অভিযান ডজন খানেক ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী গ্রেফতার র‌্যাবের অভিযানে দৌলতপুরে বোমা বিষ্ফোরণ মামলার আসামী আশিক গ্রেফতার

কুষ্টিয়ার কয়া ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হোসেন বাচ্চু হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী মানিক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধি: / ৩১৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৭ আগস্ট, ২০২১, ৫:১২ pm

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর উপজেলার চাঞ্চল্যকর ১২ বছর পর কয়া ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হোসেন বাচ্চু হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী মানিককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১২।

 

 

গতকাল বৃহ:বার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর চন্দ্রিমা উপজেলার কৃষ্টগঞ্জ এলাকায় র‌্যাবের একটি অভিযান পরিচালনা কালীন সময়ে মানিককে আটক করেন।

 

 

শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২ এর কার্যালয়ে বিশেষ প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাংবাদিকদেরকে জানান কোম্পানী কমান্ডার মোহাম্মদ ইলিয়াস খান। আটকৃত হলেন কুমারখালী উপজেলার বানিয়াপাড়া এলাকার মৃত খান শরিফ উদ্দিনের ছেলে মানিক।

 

 

এ সময় তিনি সাংবাদিকদেরকে আরও জানান ২০০৯ সালের ২৫ জুলাই বিকালে ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হোসেন বাচ্চু বাড়ী ফেরার পথে কুমারখালী উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের হাতির শাকো রেললাইন এলাকায় প্রকাশ্য দিবালোকে দূর্বুত্তরা অতর্কিত গুলি বর্ষণ ও ছুরিকাঘাত করে নিমর্মভাবে হত্যা করে।

 

 

পরে নিহতের ভাই জিয়াউল ইসলাম স্বপন বাদী হয়ে ঘটনার পরদিন কুমারখালী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কুমারখালী উপ পরিদর্শক নাসির উদ্দিন ৩৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলাটি চাঞ্চল্যকর হওয়ায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আদেশে ২০১৩ সালে ১৬ জুলাই কুষ্টিয়া আদালত থেকে খুলনা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে প্রেরণ করা হয়। মামলার বিচার শেষে বিজ্ঞ দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল খুলনা আদালত উক্ত গ্রেপ্তারকৃত আসামীসহ ১২জন আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।

 

 

র‌্যাব-১২ আরও জানান চেয়ারম্যান হত্যার পর সে নিজ এলাকা ছেড়ে রাজশাহীতে বসবাস শুরু করে। পরিচয় গোপন রেখে রকিব উদ্দিনন নামে একটি জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরী করেন। গ্রেপ্তারকৃত মানিককে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে ।

Advertisements




এ জাতীয় আরো খবর ....




ব্রেকিং নিউজ
ব্রেকিং নিউজ